কয়েকটি ফুলের স্বাস্থ্য উপকারীতা

কয়েকটি ফুলের স্বাস্থ্য উপকারীতা

ফুলের সৌন্দর্য কাকেই না টানে?  পৃথিবীর সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য ফুল হলো স্রষ্টার উপহার। গাছ থেকেই ফুল, ফুল থেকে ফল। গাছ দেয় সুশীতল ছায়া, খাবার, জ্বালানি, বাসস্থান তৈরির কাঠ। অনেক সময় দুর্যোগ মোকাবেলায়ও বিশেষ ভূমিকা রাখে। আবার আমাদের সুন্দর পৃথিবীর ভারসাম্যও রক্ষা করে।আবার কাণ্ড, শাখা-প্রশাখা শীর্ষে অথবা পাতার কক্ষে ফুল জন্মায়। ফুল উদ্ভিদের সবচেয়ে দৃষ্টি নন্দন অংশ। সমস্ত সপুষ্পক উদ্ভিদের ফুল ফোটে ও এরা উদ্ভিদের বংশবিস্তারে সাহায্য করে।কারও প্রতি ভালোবাসা প্রকাশ, বন্ধুত্বকে আরও মজবুত করতে কিংবা রূপচর্চায় ফুলের জুড়ি মেলা ভার।

 

আজকে জানবো এই ফুলের স্বাস্থ্য উপকারীতা নিয়েঃ

 

(১) গোলাপঃ ফুলের রাজা বলে সর্বজনস্বীকৃত গোলাপ। চিনা চিকিৎসায় এর বিশেষ কদর রয়েছে। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ফেনোলিকস, যা বুকের জ্বালাপোড়া প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। নানা ধরনের ভিটামিনেরও উৎস এ ফুল, যা হৃদরোগ, ক্যানসার ও ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কমাতে সহায়তা করে।

(২) ল্যাভেন্ডার: এটি একটি সুগন্ধি ফুল। আইসক্রিম ও দইয়ের সঙ্গে মিশিয়ে এটি খাওয়া যায়। এটি অ্যান্টিসেপটিক হিসেবে ব্যবহার করা যায়। ফুলটির রস খুশকি দূর করতে ম্যাজিকের মতো কাজ করে৷

(৩) গাঁদা: চিনে চায়ের সঙ্গে মিশিয়ে এ ফুল খায়। এর রয়েছে বহু স্বাস্থ্যগুণ। দৃষ্টিশক্তি ঠিক রাখতে এর ভূমিকা অনন্য।

(৪) জবা: এটিও স্যালাড ও চায়ে মিশিয়ে খাওয়া যায়। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্থোসায়ানিনস ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, যা নিম্ন রক্তচাপ ও কোলেস্টেরলের মাত্রা ঠিক রাখে।

(৫) জুঁই: সুগন্ধি ফুলটি চা ও স্যালাডের সঙ্গে মিশিয়ে খাওয়া যায়। এতে রয়েছে এমন এক ধরনের উপাদান; যা ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধ করে।

অনলাইনে বীজ কোথায় পাওয়া যায়ঃ

দোকানের পাশাপাশি এখন অনলাইনে বীজ কিনতে পারবেন। কিনতে নিচে বীজ লেখা লিঙ্কের উপর ক্লিক করুনঃ

বীজ